গাজীপুরের কৃতি সন্তান সাবেক M,L,A এ্যাডঃ ফয়েজুর রহমান খান মৃত্যু বার্ষিকীতে পরিবারের দোয়া কামনা

0
2

আজ এড.ফয়েজুর রহমান খানের মৃত্যু বার্ষিকী।

গাজীপুরের কৃতি সন্তান সাবেক এম এল এ (MLA -Member of Legislative Assembly) ফয়েজুর রহমান খান (ফুলু মিয়া) এর 19তম মৃত্যু বার্ষিকী৷
জনাব ফয়েজুর রহমান খান 1954 সালের নির্বাচনে হক-ভাষানী-সোহরাওয়ার্দীর যুক্তফ্রন্ট থেকে গাজীপুর জেলার বৃহত্তর কালীগঞ্জ আসন (কালীগঞ্জ, পলাশ, টংগী ও গাজীপুর সদর) থেকে একজন কনিষ্ঠ প্রার্থী হিসেবে তৎসময়ের ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগের প্রার্থীকে প্রায় বিশ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে পাকিস্থান জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।
উল্লেখ্য যে,তৎসময়ে জনাব ফয়েজুর রহমানের বন্ধু বঙ্গতাজ জনাব তাজউদ্দিন সাহেবও পার্শ্ববর্তী থানা কাপাসিয়া থেকে যুক্তফ্রন্টের হয়ে নির্বাচন করে সাংসদ নির্বাচিত হন৷
জনাব ফয়েজুর রহমান খান ভাওয়াল পরগনার কালীগঞ্জ থানার মোক্তারপুর ইউনিয়নের সম্ভ্রান্ত জমিদার পরিবার বাঘুন মিয়া বাড়ীতে জন্ম গ্রহন করেন৷ তিনি তার পিতা জমিদার আহাদ বক্স খাঁ এর তৃতীয় ছেলে৷
কর্মজীবনে তিনি একজন খ্যাতিমান এডভোকেট ছিলেন৷ তিনি ঢাকা বারের একাধিকবার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন৷
তিনি তার জীবন সমাজ সেবায় ও জনগনের জন্য ব্যয় করেছেন৷
মৃত্যুকালে তিনি তিন ছেলে ও একমেয়ে রেখে যান৷
তার বড় ছেলে ডাঃ মকবুলুর রহমান খান, মেঝ ছেলে ইঞ্জনিয়ার মওদুদুর রহমান খান, ছোট ছেলে এডভোকেট মাহবুবুর রহমান খান৷
মেয়ে সাকিনা রহমান চৌধুরী৷
তার হাসবেন্ড সুপ্রীম কোর্টের জাষ্টিস মইনুল ইসলাম চৌধুরী৷
ফয়েজুর রহমান খানের সুযোগ্য ছেলে ডাঃ মকবুল তার পেশার পাশাপাশি একজন সমাজ সেবক৷ তিনি বাঘুন মিয়াবাড়ীর বর্তমান পারিবারিক প্রধান৷ এ ছাড়া তিনি বাঘুন হাই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির চেয়ারম্যান ও বাঘুন মিয়াবাড়ী জামে মসজিদের সভাপতি৷
আমি আমার সকল বন্ধু শুভানুধ্যায়ীদের কাছে আমার চাচা জনাব ফয়েজুর রহমান খান ও চাচী সহ সকল মুসলিম নর-নারীর রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া চাই৷

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন