গাজীপুর কাপাসিয়ায় মাত্র ১ কিঃ খাল খননের অভাবে ৩ হাজার বিঘা জমি কচুরিপানার নিচে কৃষকদের মাথায় হাত

0
31

কাপাসিয়া(গাজীপুর)প্রতিনিধিঃ গাজীপুর কাপাসিয়া উপজেলা,নলী বিল কাঁঠাল পেয়ারা আনারশ সর্বোপরি কৃষি উৎপাদন ও কৃষি নির্ভর অর্থনীতির কাপাসিয়া সেই কাপাসিয়া উপজেলার অন্যতম বৃহৎ একটি বিল। এই বিলের মাছ খুবই সুস্বাদু ও নামকরা।
গত ৭ বছরধরে সম্পূর্ণ বিলটি কচুরিপানায় ছেয়ে গেছে।

কচুরিপানার নিচে তলিয়ে আছে ৩ হাজার বিঘার অধিক তিন ফসলী জমি। বছরে ২ফসল ধান ও ১ ফসল রবি শস্যের বাম্পার ফলনের এ জমির ফসলে স্থানীয় ৬টি গ্রামের ২০ হাজার মানুষের সারা বছরের খাদ্য সংস্থান হতো। এখানকার উৎপাদিত সবজি বাজারের সেরা যা স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হতো। আজ সবই স্মৃতি।
সরকারি উদ্যোগে সামান্য পরিমাণ খাল কাটা ও সংস্কারের অভাবে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে সোনা ফলানো বিস্তৃর্ণ কৃষিজমি কচুরিপানার নিচে লুকিয়ে রয়েছে। অতিরিক্ত কচুরিপানার কারণে বিল মৌসুমে মাছ উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে । যেন দেখার কেউ নেই।

পলাশপুর,ফুলবাড়ীরা,রাওনাট,দুর্গাপুর,চাকৈল,মাশক ও চাঁদপুর গ্রামের কৃষকরা আজ পরিবার পরিজন নিয়ে অনাহারে অর্ধাহারে অতি কষ্টে দিনাতিপাত ও নিরবে চোখের পানি ফেলছেন। নিজেদের জমি থেকেও নেই।

মাত্র এক কিলোমিটার খাল খননের অভাবে(যা ভরাট হয়ে আছে) নলীবিল আজ দুঃখের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
উপজেলা কৃষি অফিস কখনো খোঁজখবর নেয় না।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা স্থানীয় এমপি সিমিন হোসেন রিমিকে বিষয়টি অবগত করেছেন। তবে কোন সুফল পাওয়া যায় নি।
স্থানীয়দের প্রত্যাশা অতি শীঘ্রই চলতি শুষ্ক মৌসুমে নলী বিলের গলার কাঁটা ঘাটকুড়ি খাল খনন করে এ সমস্যার সমাধান করা হোক।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন