গাজীপুর শ্রীপুরে হটাৎ বেড়ে গেছে ধর্ষণ/ গণধর্ষণের মত জঘন্য অপরাধ

0
33

লিখেছেন মিনারা কামালঃ
“ধর্ষণ” বর্তমানে গাজীপুর জেলা শ্রীপুরে থানার প্রত্যন্ত এলাকায় একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে রীতিমতো হৈচৈ পড়ে গেছে। কিন্তু কেন এমন জঘন্যরকম কান্ড? আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ধর্ষণকারীদের শাস্তি দিতে পারছেন না। তবে কেন সে মধ্যযুগীয় বর্বরতার শিকার হচ্ছে আমাদের দেশের নারীরা যেখানে বাংলাদেশের আইনে ধর্ষণকারীর শাস্তি যাবজ্জীবন থেকে মৃত্যুদণ্ড পর্যন্ত দেওয়া হয়। বর্তমান কর্মরত শ্রীপুর থানার ওসি তিনি এ ঘটনার জন্য দায়ী মনে করেন বর্তমানে প্রযুক্তির অপব্যবহার । মোবাইল ফোনে প্রেমালাপ টুইটার মেসেঞ্জার ফেসবুক ল্যাপটপ ইত্যাদির অপব্যবহারের কারণে দর্শনের মত এমন একটি জঘন্য অপরাধ নাকি বেড়ে গেছে সত্যি কি তাই? আমাদের দেশের নারীরা বিভিন্ন পেশার কাজে নিযুক্ত তারা দিন রাত ঘুরে বেড়ায় কাজের তাগিদে। এদেশের মেয়েদের রাস্তায় চলাচলের কোন সুরক্ষা ব্যবস্থা নেই। বিগত (১০) দিনের মধ্যে সাত জন নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে জানা যায়। এর জন্য শ্রীপুর থানায় তিনটি মামলা দায়ের হয়েছে এবং ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে একাধিক অভিযুক্তকে,বিভিন্ন পত্রিকা ও মিডিয়া মারফত এমন খবর পাওয়া গেছে। ধর্ষণকারীরা কি তার যোগ্য শাস্তি পাবে প্রশ্ন রইলো বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে? অধিকাংশ ধর্ষণ মামলায় ঝুলে থাকে বছরের পর বছর ধরে,কোন বিচার কার্যক্রমে অগ্রগত৷ হয়না তেমন। বাংলাদেশ সরকারের কাছে জনতার আকুল আবেদন এই যে প্রত্যন্ত এলাকার থানা বা কোট কাচারিতে খোঁজ নিয়ে দেখতে পারবেন একেকটা ধর্ষণ মামলা ৭-৮ বছর ধরে ঝুলে আছে বিচার কার্যক্রম। দেশের বিচার ব্যবস্থার এই হাল থাকার কারণে দর্শন অপরাধ আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে দেশের আইন শৃঙ্খলা ব্যবস্থার এরকম পরিস্থিতি থাকলে একের পর এক ধর্ষণের মত অপরাধ বেড়ে যাবে,এতে করে সামাজিক অবক্ষয়ের পাশাপাশি আত্মরক্ষার ঝুঁকিতে পড়বে আমাদের দেশের নারী এবং শিশুরা।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন