চট্টগ্রামে কবরস্থানের সাইনবোর্ড লাগানোকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেফতার-৩

0
12

চট্টগ্রামে কবরস্থানের সাইনবোর্ড লাগানোকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেফতার-৩

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের বাকলিয়ায় কবরস্থানের সাইনবোর্ড লাগানোকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় অস্ত্রধারী মূলহোতা ইয়াকুব,ওসমান সহ ৩ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গত ১১/০৬/২০২১ইং তারিখ বাকলিয়া থানাধীন কালামিয়া বাজার আব্দুল লতিফ হাটখোলা রোডে বড় মৌলভী বাড়ীর পারিবারিক কবরস্থানে বিনামূল্যে কবর দেওয়া হয় উল্লেখ করে সাইনবোর্ড লাগাতে গেলে এলাকার ভূমিদুস্য ইয়াকুব,ওসমান গং অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম ইব্রাহিম সাহেবের পরিবারের উপর আক্রমন করে। আসামীগণ ঘটনার সময় ঘটনাস্থলে বিদেশী অস্ত্র ব্যবহার করে গুলি বর্ষণ করে। এতে ঘটনাস্থলে ০৪(চার)জন গুলিবিদ্ধ হয় এবং ০৯ জন আহত হয়।

উক্ত ঘটনার পর উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) বিজয় বসাক বিপিএম পিপিএম (বার), অতিঃ উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোঃ আমিনুল ইসলাম,সহকারি পুলিশ কমিশনার (চকবাজার জোন) কামরুল ইসলাম এবং অফিসার ইনচার্জ, বাকলিয়া থানা মোহাম্মদ রুহুল আমিন এর সরাসরি তত্ত্বাবধানে বিষয়টি গুরুত্বের সহিত গ্রহন করে ঘটনায় জড়িত আসামীদের গ্রেফতার এবং অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের লক্ষ্যে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এর ফলে গত ১৬/০৬/২০২১ ইং তারিখ বাঁশখালী থানা এলাকা হইতে ঘটনার সময় বিদেশী অস্ত্র ব্যবহার করে গুলিবর্ষণকারী আসামী মোঃ জাহিদুল আলম (২৪)’কে গ্রেফতার করা হয় এবং তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক ০১টি বিদেশী পিস্তল ও ০২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।
ঘটনার মূলহোতা মোঃ ইয়াকুব ও মোঃ ওসমান পলাতক থাকলে তাদেরকে গ্রেফতার এবং অস্ত্র উদ্ধারে বাকলিয়া থানা পুলিশ আরো সোচ্চার হয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ২৪/০৬/২০২১ তারিখ ঘটনার মূলহোতা সন্ত্রাসী ভূমিদুস্য মোঃ এয়াকুব (৫০), পিতা-হাজী মোঃ ইসলাম সওদাগর, মাতা-সখিনা খাতুন, সাং-ইসলাম সওদাগরের বাড়ী, মৌলভী আব্দুল গফুর রোড, আব্দুল লতিফহাট, থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম’কে চট্টগ্রাম জেলার জোরারগঞ্জ থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করা হয় এবং ঢাকা মহানগর এলাকার পল্টন থানাধীন এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে অপর ভূমিদস্যু মোঃ ওসমান (৩৫), পিতা-মৃত হাবিবুর রহমান প্রঃ আবু, মাতা-আনোয়ারা বেগম, সাং-ডাক মাঝির বাড়ী, ঘাটকুল, বলিরহাট, থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম এবং মোঃ মাসুদ আলম (৩৬), পিতা-হাজী মুন্সী মিয়া, মাতা-গোলচেহের বেগম, সাং-বলিরহাট সানোয়ারা স্কুল, হাজী মালেকুজ্জামান সওদাগর বাড়ী, থানা-বাকলিয়া, জেলা-চট্টগ্রাম’কে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনার সময় ঘটনাস্থলে দেশী এবং বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে মর্মে স্বীকার করে। গ্রেফতার পরবর্তী আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা ঘটনার সহিত জড়িত মর্মে স্বীকার করে। ঘটনার সময় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র সর্ম্পকে জিজ্ঞেস করলে তারা জানায় ঘটনার পর পর আব্দুল লতিফ হাটখোলা চাঁন্দগাজী রোড, শেষ মাথা খালের দক্ষিণ পাশে লুকিয়ে রেখেছে।উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান টিম উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে ঘটনাস্থলে ইং ২৪/০ ৬/২০২১ইং সময় ২৩:৫০ ঘটিকার সময় অভিযান পরিচালনা করে ধৃত আসামীদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক ঘটনার সময় ব্যবহৃত ১।০১টি বিদেশী পিস্তল ম্যাগজিন সহ যাহাতে অস্পষ্ট ভাবে Made in USA লেখা আছে, ২।দুই রাউন্ড গুলি ৩।০২টি লম্বা কিরিচ উদ্ধার করা হয়।এই বিষয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে ০১টি নিয়মিত মামলা রুজু করা হইয়াছে।এই ঘটনার সাথে জড়িত বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন