ছাদ কৃষিতে নজিরবিহীন সফলতা !

0
12

এম হায়দার চৌধুরী, শায়েস্তাগঞ্জ থেকে :: হবিগঞ্জ জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ, শখ করে অফিসের ছাদে সবজি বাগান করেছেন। এ বাগানে তিনি বিষমুক্ত ফল ও শাক-সবজি উৎপাদনের পাশাপাশি পরিবেশের বিশুদ্ধতা রক্ষায়ও বিশেষ অবদান রাখছেন।
আলাপকালে শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ জানান, সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত উদ্যোগে নিজ খরচে তিনি এ বাগানটি নির্মাণ করেছেন। ফজরের নামাজ আদায় করে প্রতিদিন তিনি দেড় ঘন্টা বাগানের পরিচর্যা করেন। আর এতে তিনি আনন্দও পান। তিনি বলেন, নিজ হাতে গড়া বিষমুক্ত বাগানের শাক-সবজি দিয়ে চলে তার সংসার। আর তাই বাজার থেকে তেমন শাক সবজি কিনতে হয় না। তার ভবিষ্যত পরিকল্পনা জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাদে বাগান গড়ে তোলা, স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করা যাতে তারা ব্যক্তিগত উদ্যোগে শখের কাজ হিসেবে বাসা বাড়িতেও বাগান গড়ে তোলে। এতে বিষমুক্ত খাদ্য পাওয়ার পাশাপাশি বিশুদ্ধ ও নির্মল বায়ু নিশ্চিত হবে।

মোহাম্মদ রুহুল্লাহ তার ছাদ বাগানে ফলের মধ্যে- ড্রাগন, চায়না কমলা, চায়না মাল্টা, কাশ্মিরী আপেল কুল, জাম্বুরা, স্ট্রবেরী, ডালিম (আনার), পেঁপে, বেলম্বু, কামরাঙা, মিষ্টি তেতুল, থাই পেয়ারা, কলা, আম, জামরুল, অরবড়ই, দারুচিনি, অ্যালোভেরা ইত্যাদি চাষ করেছেন। সবজির মধ্যে- বিভিন্ন প্রজাতির লেটুস পাতা, নাগা মরিচ, কাল মরিচ, ঢেড়স, বিভিন্ন প্রজাতির বেগুন, মিষ্টি কুমড়া, চাল কুমড়া, করলা, ঝিঙা, লাল রঙের পুঁই শাক, লাউ, ডাটা, উন্নত মানের কচু চাষ করার পাশাপাশি পান পাওয়া যায় তার বাগানে।
এ ব্যাপারে তিনি জানান, তিনি বিভিন্ন সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ফলের চারা সংগ্রহ করে এনেছেন এতে বর্তমানে ফল আসতে শুরু করেছে। তিনি মৌসুমী শাক সবজির বীজ ও চারা রোপনে গুরুত্ব দিয়ে থাকেন আর এসব ক্ষেত্রে তিনি খাদ্য নিরাপত্তার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দেন। তিনি তার ছাদ বাগানে কোন রাসায়নিক সার ব্যবহার করেন না। ছাদের উপরেই গাছের পাতা, সবজির খোসা পঁচিয়ে অর্গানিক সার তৈরী করেন। এছাড়া গোবর সারও প্রয়োগ করে থাকেন। ফলে ছাদ বাগানে উৎপন্ন সকল শাক সবজি ও ফলমূল থাকে বিষমুক্ত ও পরিবেশ বান্ধব।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন