ধর্মীয়,সামাজিক রীতি বিরোধী কর্মকাণ্ড এবং নারী অধিকার

0
18

ধর্মীয়,সামাজিক রীতি বিরোধী কর্মকাণ্ড এবং নারী অধিকার/স্বাধীনতার নামে বেহায়াপনা নিশ-সন্দেহে ঘৃণিত কাজ?

আগামী সমাজ গঠনে,আগামীর এক মায়ের সমাজ ধ্বংসের অপচেষ্টার একটি চিত্র দেখলাম!!
কারণ একটি ভালো সুন্দর সমাজ গঠনে একজন মায়ের ভূমিকা অপরিসীম..একটি শিক্ষিত মা একটি শিক্ষিত জাতি অথচ! কোথায় যাচ্ছে মুসলিম সমাজ?
গায়ে হলুদে কন্যা নিজে বন্ধু বান্ধবীদের নিয়ে শহরের রাস্তায় বাইক শো করে চলে গেলেন বরের বাড়িতে!শুধু তাই নয় রীতিমতো হিন্দি গানের তালে নেচে-গেয়ে গিয়ে বসলেন নির্ধারিত মঞ্চে!!?

এই কান্ডের ভিডিও চিত্র এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভাইরাল।

ঘটনাটি ঘটেছে খুলনা বিভাগের যশোর জেলায়। মেয়েকে সবাই ড্রিমি আপু বলে ডাকে।
খোঁজ নিয়ে জানাযায় মেয়েটির নাম ফারহানা আফরোজের বাড়ি যশোর সার্কিট হাউজের সামনে। যশোর সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২০১১ সালে এসএসসি ও ২০১৩ সালে যশোর আব্দুর রাজ্জাক কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এখন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (ডিআইইউ) থেকে এইচআর-এ এমবিএ করছেন ফারহানা।
দু’দিন আগে মেয়ের গায়ে হলুদের দিন ছিল।সেদিন মেয়েটি নিজে মোটরসাইকেল চালিয়ে ১৭ জন (জোড়ায় জোড়ায়) যশোর শহরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে।

মুসলিম সমাজে এমন রীতিনীতি সত্যি দুঃখজনক এবং আগামী দিনের অশনিসংকেত!
আজ এই মেয়ে করেছে আগামীকাল আরেকজন করবে। মনে আছে ১ বছর আগে একজন নারী দলবল নিয়ে বিয়েতে বরকে আনতে গিয়েছিল বরের বাড়ি!
ঘটনাটি নিয়ে হয়েছিল ব্যাপক সমালোচনাও।

এসব ঘটনায় যখন ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা বাধা দিতে যাবে তখনই নারীবাদীরা নারী অধিকার বলে তাদের উস্কানি দিবে। আর এসব অবুঝ অবাধ্য মেয়েরা হয়ে উঠবে একেকটা নাস্তিক!??

তাই আসুন আমরা এরকম সকল ঘটনার প্রতিবাদ করি।সোচ্চার হই। মুসলিম সমাজ যেন অধঃপতনে না যায় সেদিকে খেয়াল করি।

লেখক-মোঃ শফিকুল ইসলাম ভূইয়া সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন