বিশ্বাস-চেষ্টা ও পরিশ্রম দিয়ে সফল হওয়া-অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান

0
7

মো: নাসির( নিউ জার্সি আমেরিকা থেকে )- আমি মনে করি শিক্ষকতা পেশাটি আসলে একটি মহান পেশা। পেশার চেয়ে নেশাই বেশি কাজ করে এখানে। শিক্ষক হলেন মানুষ গড়ার কারিগর। তাই তার নৈতিকতা হবে সর্বোত্তম। শিক্ষক হবেন স্বার্থহীন, লোভহীন এবং সৎ ব্যক্তি। ছাত্রদের কল্যাণে নিজের জীবন উৎসর্গ করার নামই শিক্ষকতা। যে বা যারা এসব মেনে নিতে পারবেন, তারাই এ মহান পেশাকে আপন করতে পারবেন।

আদর্শগতভাবে ও নীতিগতভাবে তিনি (অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান : উপাচার্য, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়)নিজ অবস্থানে অনড় থেকে সর্বদা কাজ করেন ত্রবং করেছেন যা আমাদের জন্য অনুকরণীয় হয়ে থাকবে।

আমাদের সমাজে অনেক ভালো মানুষ রয়েছেন। তারা নিজ চেষ্টায় দেশ এবং দেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করে থাকেন। সর্বদা শুধু নিজের জন্য নয় তারা সমাজের অন্যের ভালোর জন্যও কাজ করেন। তাদের চিন্তা-চেতনায় থাকে সবসময় মানুষের উন্নয়ন। সারাটা জীবন কাটিয়ে দেন মানুষের কল্যাণে। সেই সকল মানুষকে আমরা আলোকিত মানুষ হিসেবেও আখ্যায়িত করে থাকি। সেই আলোকিত মানুষ আমাদের সমাজে খুব বেশি যে রয়েছেন তা কিন্তু নয়। হাতেগোনা যে কয়জন রয়েছেন তাদেরকেও আমরা আমাদের সংকির্ন মনমানসিকতার কারণে তাঁদের সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরার চিন্তাও করি না। যার ফলে অনেকই থেকে যান পর্দার আড়ালে। এমনই একজন মানুষ যার মনের ইচ্ছা, শক্তি,সামর্থ্য এবং নিজ দায়বদ্ধতায় থেকেই দেশ ও সমাজের জন্য কাজ করে থাকেন।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন