রবিবার হেফাজতের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল

0
9

জি নিউজ ডেস্কঃ দেশের অরাজনৈতিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর নতুন কমিটি আসছে আগামী রবিবার (১৫ নভেম্বর)। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী। চট্টগ্রামের দারুল উলুম হাটহাজারী মাদরাসায় হেফাজতের এ কাউন্সিল হবে।

২০১০ সালের ১৯ জানুয়ারী দারুল উলুম হাটহাজারী মাদরাসা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ওলামা সম্মেলনে গঠিত হয়েছিল চট্টগ্রাম কেন্দ্রীক অরাজনৈতিক ইসলামী সংগঠন ‘হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশ’। সেই সম্মেলনে প্রয়াত আল্লামা শাহ্ আহমদ শফি সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা আমীর মনোনীত হন। পরবর্তীতে রাসুলের সা. অবমাননা, নারী উন্নয়ন নীতিমালা ও ধর্মনিরপেক্ষ শিক্ষানীতির বিরোধিতার মধ্য দিয়ে হেফাজতের আত্মপ্রকাশ হলেও ২০১৩ সালে ৫ মে ১৩ দফা দাবিতে রাজধানীর শাপলা চত্ত্বর অবরোধের মাধ্যমে সংগঠনটি বিশ্বজুড়ে আলোচনায় আসে। এরপর গত ১৮ অক্টোবর (শুক্রবার) প্রয়াত হোন হেফাজত আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফি রহ.। শূন্য হয় কওমি মাদরাসা কেন্দ্রীক অনেকগুলো পদ। এর মাঝে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর আমীর পদ অন্যতম। আগামী রবিবার (১৫ নভেম্বর) হেফাজতের কেন্দ্রীয় সম্মেলনে এ পদ পূরণ করা হবে।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী জানান, ‘আগামী ১৫ নভেম্বর হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। হেফাজতের প্রায় সাড়ে ৩’শ জন কেন্দ্রীয় শীর্ষ মুরুব্বিরাই ঠিক করবেন কে হবেন প্রয়াত আল্লামা আহমদ শফি রহ. এর স্থলাভিষিক্ত।

জানা গেছে, কাউন্সিল উপলক্ষে সারাদেশ থেকে কওমি অঙ্গের শীর্ষ আলেমরা কাউন্সিলে উপস্থিত থাকবেন। ইতোমধ্যে কেন্দ্রীয় সম্মেলনকে ঘিরে হেফাজত নেতাদের মধ্যে তোড়জোড় শুরু হয়েছে।

আরও জানা গেছে, আগামী রোববার সকাল ১০টা থেকে হাটহাজারী মাদ্রাসা মিলনায়তনে হেফাজতের সম্মেলনে অনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়ে বিকেল ৩টা পর্যন্ত চলবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন হেফাজতের বর্তমান সিনিয়র নায়েবে আমির মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী।

হেফাজত সূত্রে জানা যায়, হেফাজতের নতুন আমির হিসেবে সবার গ্রহণযোগ্য এবং রাজনৈতিক কোনো অভিলাষ নেই বলে বর্তমান মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর নাম বিবেচনার শীর্ষে রয়েছে। এ ছাড়া সংগঠনটির মহাসচিব পদে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও ঢাকার জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী, ঢাকার খিলগাঁও মাখজানুল উলুম মাদরাসার মাওলানা নুরুল ইসলাম জিহাদী, ফটিকছড়ির জামিয়া উবাইদিয়া নানুপুর মাদরাসার পরিচালক মাওলানা সালাহউদ্দিন নানুপুরী, হাটহাজারী মাদরাসার পরিচালনা কমিটির সদস্য মাওলানা শেখ আহমদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দারুল আরকাম মাদরাসার প্রিন্সিপাল আল্লামা সাজিদুর রহমান ও ঢাকার জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়ার সিনিয়র মুহাদ্দিস মাওলানা মামুনুল হকের নাম আলোচনায় রয়েছে বলে হেফাজতের একাধিক নেতাকর্মী জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, সংগঠনটির শুরুর দিকে নানা কারণে সরে দাঁড়ানো কওমি অঙ্গনের শীর্ষ বেশ কয়েকজন আলেম পুনরায় যুক্ত হচ্ছেন। এদের মধ্যে পটিয়া আল-জামেয়া আল ইসলামিয়া জমিরিয়া মাদরাসার আল্লামা আবদুল হালিম বোখারী, বসুন্ধরা ইসলামিক রিসার্চ সেন্টারের পরিচালক মুফতি আরশাদ রাহমানি ও চট্টগ্রাম দারুল মাআরিফ মাদরাসার পরিচালক আল্লামা সুলতান যওক নদভী অন্যতম।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন