শায়েস্তাগঞ্জে শাক-সবজির অগ্নি মূল্য !

0
11

এম হায়দার চৌধুরী, শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় অতিবৃষ্টি ও বন্যার প্রভাবে বাজারে সব ধরনের শাক-সবজির দামই বৃদ্ধি পেয়েছে। সকল সবজিতেই কেজিতে বেড়েছে ১০ থেকে ২০ টাকা। এখনো কাঁচামরিচের ঝাল কমেনি। তাই কাঁচামরিচের দাম আবারও ২শ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

গতকাল উপজেলার বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে এবং বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বর্তমান বাজারে ডায়মন্ড আলু ৩৫ টাকা, দেশী আলু ৪৫ টাকা, পেপে ৪০ টাকা, কাকরোল ৫০ টাকা, বেগুন, ঝিঙা ও ঢেঁরশ ৪০ টাকা, করলা ৬০টাকা ও বরবটি ৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। আর পটল ৫০, টমেটো ১২০, শশা ৪৫। কাঁচামরিচ কেজি ২০০ টাকা গাজর ১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এদিকে লাল শাক ৪০ টাকা, পুঁইশাক ৪০টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

আলীগঞ্জ বাজারের সবজি বিক্রেতা সাহাদাত হোসেন এ প্রতিবেদককে বলেন, সবজির দাম ৪ সপ্তাহ ধরেই বাড়তি চলছে। বন্যার কারণে সব ধরনের সবজি কেজিতে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেড়েছে।

বাজার আসা সবজি ক্রেতা কামাল আহমদ জানান, করোনা প্রাদুর্ভাবকালে যখন দূরপাল্লার পরিবহনগুলো বন্ধ ছিল তখন সবজির মূল্য ছিল আপামর জনসাধারণের নাগালের মধ্যে। এখন দূরপাল্লার পরিবহনগুলো সচল হওয়ার কারণে এলাকার সবজি বিভিন্ন পাইকারী বাজারে যাচ্ছে। আবার বন্যা ও অতিবৃষ্টিতে সবজি বাগান তলিয়ে যাওয়ায় অনেক শাক-সবজি নষ্ট হয়েছে।

দাউদনগর বাজারের সবজি বিক্রেতা মোঃ হারিছ জানান, দুইমাস আগে করোনাকালে সবজির মূল্য খুবই কম ছিল। এখন সবজির সরবরাহ কম থাকায় দাম একটু বেশি। তবে নতুন সবজি বাজারে আসলে দাম কমবে।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন