শায়েস্তাগঞ্জে স্কুল বন্ধ থাকলেও টিউশন ফি আদায়ের অভিযোগ !

0
3

এম হায়দার চৌধুরী, শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি :: বৈশ্বিক করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে দেশে গত ১৮ মার্চ থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। পুনরায় কবে নাগাদ স্কুল খুলবে তারও কোন নিশ্চয়তা মেলেনি। এ দীর্ঘ ছুটির মধ্যেও শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ টিউশন ফি আদায়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের চাপ প্রয়োগ করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র তাহমিদ আহমেদের মা রেজিয়া বেগম ক্ষোভের সাথে জানান, তার স্বামী চাকুরী করতেন প্রান কোম্পানীতে। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে তিনি চাকরি হারিয়ে এখন বেকার। এরই মধ্যে স্কুল থেকে জানানো হয় ১০ অক্টোবর সন্তানের পরিক্ষা। সে অনুযায়ী সন্তানকে ১ মাসের বেতন ও পরীক্ষার ফি দিয়ে স্কুলে পাঠান। তার সন্তান ফিরে এসে জানায়, ক্লাস টিচার তার টাকা গ্রহণ না করে আগামীকাল এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ১৪৮০ টাকা নিয়ে স্কুলে যাওয়ার কথা বলছেন। তিনি নিরুপায় হয়ে বেতন মওকুফ করাতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়ে বলেন, স্কুল কর্তৃপক্ষ এতো নির্দয় হলে আমরা কার কাছে যাবো?

এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্নিংবডির সভাপতি জামাল উদ্দিন জানান, বেতন আদায়ের বিষয়ে আমাদের কোন মিটিং হয়নি, তবে প্রধান শিক্ষক আমাকে ফোনে এ ব্যাপারে জানিয়েছেন।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক হারুনুর রশীদ বলেন, আমি নিজ উদ্যোগে বেতন আদায়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আগামী ১০ তারিখে পরিক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থাও গ্রহণ করেছি।
সহকারী প্রধান শিক্ষক মহিবুর রহমান জানান, শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি আদায় না করে শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। অনেকেই বেতন মওকুফের আবেদন দিয়েছেন আমি পরবর্তী বোর্ড মিটিং এ বিষয়টা উত্থাপন করবো।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন