শ্রীপুরে নদীর জমি দখলের চেষ্টায় বসানো সাইনবোর্ডের খবর জানেনা মুক্তিযুদ্ধা নিজেই!

0
75

গাজীপুর: সাইনবোর্ডে জমির মালিক দাবী করা। নেই কোন তপসিল। সাইনবোর্ড দেয়ার পর বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমতো ভাইরাল হলে হঠাৎ করেই উধাও হয়ে যায় সাইনবোর্ড। ডিজিটাল যুগে ছবি ভাইরাল হয়ে যাওয়ার কারণে শীতলক্ষার তলদেশ দখলের চেষ্টার খবর চাওড় হয়ে যায়।

ঘটনাটি ঘটেছে গাজীপুর জেলার গোসিংগা বাজারের পূর্বপাশে শীতলক্ষা নদীর তলদেশে। শনিবার পর্যন্ত সাইনবোর্ডটি ওই খানেই ছিল। আজ রোববার দেখা যায়নি।

স্থানীয়রা বলছেন, নদীর চর দখলের জন্য একজন মুক্তিযোদ্ধা নিজের নামে সাইনবোর্ড দেয়। বিষয়টি সমালোচনার মধ্যে পড়ে যাওয়ায় হঠাৎ সাইনবোর্ড উঠে যায়।

সরেজমিন জানা যায়, সম্প্রতি শীতলক্ষা নদীর তীরে অবস্থিত গোসিংগা বাজারের পূর্ব পাশে নদীর তলদেশে জেগে উঠা চরে ওই সাইনবোর্ড দেয়া হয়। আজ রোববার সাইনবোর্ডটি হঠাৎ উধাও হয়ে যায়।

এ বিষয়ে সোইনবোর্ডে উল্লিখিত বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাবিবুল্লাহ ফকির জানান, আমি কোন সাইনবোর্ড দেইনি। এ বিষয়ে কিছু জানিনা। জেনে বলতে পারব। তবে তিনি বলেন, এররকম জবরদখল আরো আছে। সেগুলো নিয়ে কিছুই বলেন না কেন।

অনুসন্ধানে জানা যায়, শীতলক্ষার তীরে গোসিংগা বাজারে একাধিক ঘটনায় একাধিক ব্যক্তি সরকারী জমি জবরদখল করেন। মিডিয়ার তৎপরতায় সরকার ব্যবস্থা গ্রহন করেন। তবে ব্যবস্থা গ্রহনের কোন সুফল পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানায়, গতকাল পর্যন্ত শীতলক্ষার তলদেশে থাকা সাইবোর্ডর জায়গাটি শীতলক্ষার তলদেশে ছিল। এই জায়গাকে ঘুর্নিপাকের জায়গা বলা হতো। গোল হয়ে বিকট শব্দে নদীর স্রোত এই জায়গায় ঘুরপাক খেতো।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন