শ্রীপুরে বিএনপি নেতা হিরার কবর জিয়ারত ও পরিবারের খোঁজখবর নিতে কেন্দ্রীয় নেতা জয়নুল আবেদীন

0
27

শ্রীপুরে বিএনপি নেতা হিরার কবর জিয়ারত ও পরিবারের খোঁজখবর নিতে কেন্দ্রীয় নেতা জয়নুল আবেদীন

গাজীপুর:: গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারা হেফাজতে মারা যাওয়া বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান হিরা খানের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের খোঁজখবর নিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

২৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার বেলা ৩টায় দলীয় কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে সেখানে যান তিনি। এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘সরকার পতনের এই আন্দোলনকে কেন্দ্র করে যাঁরা জেলখানায় মৃত্যুবরণ করেছে, তাদের পরিবারের খোঁজখবর রাখার দায়িত্ব হচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের। কেননা তারা এ দেশের মানুষের জন্য, এ দেশের গণতন্ত্র রক্ষার জন্য আন্দোলন করার করে গ্রেপ্তার হয়েছেন। তাদের জেলে পুড়ে, বন্দী করে হত্যা করা হয়েছে। আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এই গাজীপুর অঞ্চলের।

তিনি আরো বলেন, ‘জনগণ এই ডামি নির্বাচনকে গ্রহণ করে নাই, আমরাও গ্রহণ করি নাই। যাঁরা আজ জেলখানায় মৃত্যুবরণ করেছে তাদের শহীদী মৃত্যু হয়েছে। শহীদের রক্ত কোনো দিন বৃথা যায় না। এই সরকারের কর্মকাণ্ডের কারণেই তাদের পতন হবে। মানুষের গণতন্ত্র হরণ করে কেউ টিকে থাকতে পারে না। পৃথিবীর কোনো সরকার টিকতে পারেনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন,কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ডা. রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, গাজীপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ্ রিয়াজুল হান্নান, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য ওমর ফারুক সাফিন,উপজেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান ফকির, সাধারণ সম্পাদক মো. আক্তারুল আলম মাষ্টার, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মো.শফিকুল ইসলাম, শ্রীপুর
পৌর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মারুফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন বেপারী, সহ-সভাপতি বিল্লাল হোসেন,পৌর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক টিপু সুলতান সহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ।

উল্লেখ্য, বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান হিরা খান (৪৫) কাওরাইদ ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।গত ১ ডিসেম্বর শুক্রবার কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এ বন্দী থাকা অবস্থায় বুকে ব্যথা অনুভব করলে দ্রুত তাঁকে গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুপুর ১২টার দিকে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এর আগে অক্টোবর মাসে বিএনপির কেন্দ্রীয় সমাবেশ থেকে ফেরার পথে শ্রীপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে শ্রীপুর থানা-পুলিশ। ২৯ অক্টোবর শ্রীপুর থানার একটি বিস্ফোরক মামলায় তাকে প্রথমে গাজীপুর জেলা কারাগারে ও পরবর্তীতে ১০ নভেম্বর কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এ নেওয়া হয়।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন