সোনারগাঁওয়ে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ দ্বারা অবরুদ্ধ মামুনুল হক মুক্ত হয়ে যা বললেন

0
30

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মামুনুল হককে নানা রকম অপবাদ দিয়ে লাঞ্ছিত করার ছবি ভাইরাল।

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব মামুনুল হককে দ্বিতীয় স্ত্রী আমিনা তাইয়াবা (২৫) সহ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে অবরুদ্ধ করে লাঞ্ছিত করে স্থানীয় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মামুনুল হক ও তার স্ত্রীকে উদ্ধার করে এবং মামুনুল হককে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এর আগে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মামুনুল হককে নানা রকম অপবাদ দিয়ে লাঞ্ছিত করে।

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, অবরুদ্ধ অবস্থায় মাওলানা মামুনুল হক বলছেন,আমি আল্লাহর নামে শপথ করে বলছি, ওনি আমার দ্বিতীয় স্ত্রী। আমি অন্যায় কিছু করিনি। আমি শরিয়তসম্মত ভাবে বিবাহ করেছি। আমার শ্বশুর বাড়ি খুলনায়। সে আমার বিবাহিতা স্ত্রী। পর্দানশীন মহিলা। তার সাথে আপনারা খারাপ ব্যবহার করেছেন। আমাকে নাজেহাল করেছেন। আমাকে শারীরিকভাবে অপমান করেছেন। আপনাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।

রয়েল রিসোর্টে শনিবার বিকেলে স্থানীয় একদল যুবকের সাথে বাগ্বিতণ্ডার সময় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হক এসব কথা বলেন।

দেখা যায়, সোনারগাঁও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সোহাগ রনি, পৌরসভা ছাত্রলীগ নেতা মাহবুবুর রহমান রবীনসহ স্থানীয় ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতারা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করার সময় উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত প্রকাশ করেন

আপনার মন্তব্য দিন
আপনার নাম এন্ট্রি করুন